হবিগঞ্জের তরুণীকে মৌলভীবাজারে অপহরণ করে ধর্ষণচেষ্টার দায়ে গ্রেফতার ২

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের এক তরুণীকে মৌলভীবাজারে অপহরণ করে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার দায়ে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তাদের নিজ নিজ এলাকা থেকে গ্রেফতার করে মৌলভীবাজার মডেল থানা পুলিশ।

মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার হওয়া দু’জন হলেন- সদর উপজেলার নিতেশ্বর এলাকার তাজুল ইসলামের ছেলে কামাল মিয়া (২৩) এবং গিয়াস নগর ইউনিয়নের শাহপুর এলাকার মৃত সিদ্দিক মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া (২৪) ।

জানা যায়, শনিবার (১৬ নভেম্বর) দিনগত রাত অনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে অপহৃত ওই তরুণীর মামা জহিরুল ইসলাম তাকে ভৈরব বাজার পাঠানোর জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের পুরাতন গেইটের সামনে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। এ সময় একটি প্রাইভেটকারে করে অপহরণকারী দল তাদের সামনে এসে লোকাল প্যাসেঞ্জার নিয়ে শ্রীমঙ্গল যাওয়ার প্রস্তাব করে। মেয়েটির মামা তাকে গাড়িতে তুলে দিয়ে ভৈরব বাজার নামিয়ে দেওয়ার জন্য প্রাইভেটকারের চালককে বলেন।

গাড়ির চালক মৌলভীবাজার শহর পার হয়ে শ্রীমঙ্গল রোডে না গিয়া প্রেমনগর চা-বাগান রোডে প্রবেশ করলে তরুণী তাকে নামিয়ে দেওয়ার জন্য বলেন এবং চিৎকার করেন। একপর্যায়ে ওই তরুণী মোবাইল ফোনে বিষয়টি তার মামা জহিরুল ইসলামকে জানান।

পরে আসামিরা তার মোবাইল কেড়ে নেয়।প্রাইভেটকারের ভেতরে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশের কয়েকটি টিম অভিযান শুরু করে। পরে দেওরাছড়া সড়ক থেকে ধর্ষণের প্রস্তুতিকালে পুলিশ তরুণীকে ভোর ৪টার দিকে উদ্ধার করে। এসময় পুলশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামিরা পালিয়ে যায়।

মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম বলেন, রোববার সকালে অপহৃত তরুণী বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার ৪ আসামির মধ্যে চালকসহ দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পলাতক থাকা বাকি দুই আসামিকেও গ্রেফতার করা হবে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Spread the love

Facebook Comments