সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার কমানো হয়নি

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর জানিয়েছে, সঞ্চয়পত্র বা সঞ্চয় স্কিমসমূহের মুনাফার হার কমানো হয়নি। সংস্থাটি আরো বলছে, তারা সঞ্চয়পত্রের বিনিয়োগকারী বা জনসাধারণের স্বার্থকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ।

সঞ্চয়পত্রসমূহের মুনাফার হার ৫ বছর মেয়াদী সঞ্চয়পত্র ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ, ৩ মাস অন্তর মুনাফা ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ১১ দশমিক শূণ্য ৪ শতাংশ, পরিবার সঞ্চয়পত্র ১১ দশমিক ৫২ শতাংশ ও পেনশনার সঞ্চয়পত্র ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ পূর্বের ন্যায় বলবৎ রয়েছে।

এছাড়া অনিবাসী বাংলাদেশীদের জন্য বিদ্যমান ৩ টি বন্ডের মুনাফার হারও কমানো হয়নি অর্থাৎ পূর্ব নির্ধারিত হার ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড: ১২ শতাংশ, ইউ.এস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড: ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ও ইউ.এস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ড : ৬ দশমিক ৫ শতাংশ বলবৎ রয়েছে।

বুধবার জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর গণমাধ্যমে পাঠানো এক ব্যাখ্যায় এই তথ্য জানিয়েছে। সংস্থাটির মহাপরিচালক স্বাক্ষরিত ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগে মুনাফার হার কমানোর বিষয়ে যেসব সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে তা বিভ্রান্তিকর ও অসঙ্গতিপূর্ণ তথ্য সম্বলিত। এ ধরনের সংবাদ বিনিয়োগকারী বা সাধারণ জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি করছে বলে উল্লেখ করা হয়।

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বলছে, বিনিয়োগ উৎসাহিত করার জন্য সকল ব্যাংক ঋণের সুদের হার একক অংকে নামিয়ে আনার সরকারি অনুশাসনের ধারাবাহিকতায় গত ১৩ ফেব্রুয়ারি অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণাধীন ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক- সাধারণ হিসাব এবং ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক- মেয়াদী হিসাব এর মুনাফার হার হ্রাসপূর্বক পুন:নির্ধারণ করা হয়েছে।

পুন:নির্ধারণের হার হলো ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক সাধারণ হিসাব ৫ শতাংশ, ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংক-মেয়াদী হিসাব ৬ শতাংশ (মেয়াদান্তে), ৬ মাস অন্তর মুনাফা উত্তোলন না করলে ১ম বছরান্তে ৫ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরান্তে ৫ দশমিক ৫ শতাংশ ও তৃতীয় বছরান্তে ৬ শতাংশ এবং ৬ মাস অন্তর মুনাফা উত্তোলন করলে ১ম বছরান্তে ৪ শতাংশ, দ্বিতীয় বছরান্তে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ ও তৃতীয় বছরান্তে ৫ শতাংশ।

Spread the love

Facebook Comments