বাহামার দিকে এগোচ্ছে ভয়ঙ্কর হারিকেন ডোরিয়ান

ক্যাটাগরি চারে রূপ নেয়া হারিকেন ডোরিয়ান বাহামা দ্বীপপুঞ্জের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় হারিকেন সেন্টার (এনএইচসি) জানিয়েছে, দেশটির পূর্ব উপকূলে আঘাত হানার আগে রোববার বাহামায় আছড়ে পড়বে ‘চরম বিপজ্জনক’ এই ঘূর্ণিঝড়টি।

ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাব্য আঘাতকে সামনে রেখে গ্র্যান্ড বাহামার বাসিন্দারা অন্যত্র সরে যাচ্ছেন। কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন, ১৫ ফুট পর্যন্ত উচ্চতার ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে। ইতোমধ্যে দূরবর্তী কিছু দ্বীপের বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু প্রধান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এখনও উন্মুক্ত রয়েছে।

স্থানীয় সময় রোববার সকালে ঘূর্ণিঝড়টি বাহামার গ্রেট আবাকো দ্বীপের প্রায় ১২৫ মাইল পূর্বে অবস্থান করছিল। ঘণ্টায় ১৩ কিলোমিটার গতিতে পশ্চিম দিকে সরে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড়টি। তবে ভূমিতে আঘাতের সময় এই ঘূর্ণিঝড়টি সর্বোচ্চ গতি বাতাসে ঘণ্টায় প্রায় ২২৫ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে।

বাহামায় আঘাত করার পর যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলীয় অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডায় আঘাত করবে ডোরিয়ান। এর আগে পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল, ঘূর্ণিঝড়টি ফ্লোরিডায় সরাসরি আঘাত করবে তবে শেষ মুহূর্তে এটি গতিপথ পরিবর্তন করে।

বাতাসের তীব্রতার কারণে ডোরিয়ানকে সাম্প্রতিক ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়গুলোর একটি বলা হচ্ছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসকারীরা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ১৯৯২ সালে পাঁচ ক্যাটাগরির হারিকেন অ্যান্ড্রু আঘাত করার পর ডোরিয়ানই এই অঞ্চলের সবচেয়ে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়। হারিকেন অ্যান্ড্রুর আঘাতে ৬৫ জন নিহত এবং ৬৩ হাজার ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছিল।

এদিকে ডোরিয়ানকে ‘একটি চরম বিপজ্জনক ঝড়’ উল্লেখ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। এছাড়া ডোরিয়ানের কারণে নিজের পূর্ব নির্ধারিত পোল্যান্ড সফর বাতিল করে ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে পাঠিয়েছেন ট্রাম্প।

Facebook Comments