প্রাণের যত্নে প্রাণায়াম

ব্যস্ততার যুগে সময় নেই জিমে যাওয়ার। অথচ নিজেকে সুস্থ না রাখলেই নয়। তাই ব্যস্ততার মাঝেও সকালবেলা সময় বার করতে পারেন প্রাণায়ামের জন্য। ‘প্রাণ’ শব্দের অর্থ বায়ো এনার্জি। আর ‘আয়ম’ মানে নিয়ন্ত্রণ। নিয়মিত প্রাণায়াম অভ্যেস ও চর্চার মাধ্যমে কাবু করা যায় নানান রোগবালাই।

রোজ প্রাণায়ামের অভ্যেস ফুসফুস সুস্থ রাখে। ফলে শ্বাসযন্ত্রের নানা সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায় সহজে। দূরে থাকে হাঁপানি-সহ শ্বাসনালীর নানা রোগ। এ ছাড়া বাড়ায় হজম করার ক্ষমতাও। যোগ এবং অ্যাকিউপ্রেশার স্পেশ্যালিস্ট অনীশ রঘুপতি বলছেন, ‘‘প্রাণায়ামকে বলা চলে হাইপারব্যারিক অক্সিজেন থেরাপি। কোনও রকম মেশিন বা যন্ত্র নয়, প্রাণায়ামের মাধ্যমে অক্সিজেন শরীরে প্রবেশ করে, যা শরীরের জন্য খুব ভাল। শরীরের ৫১টি অংশের মধ্যে ৪৯ রকমের বায়ু আছে। সেই বায়ুকে শোধিত করার কাজটাই হল প্রাণায়ামের। এ প্রসঙ্গে জেনে রাখা জরুরি, বেশ কিছু প্রাণায়ামের মাধ্যমে ক্যানসারের চিকিৎসাও সম্ভব।’’ ক্লাসিক্যাল প্রাণায়াম সাধারণত আট ধরনের হয়। পাশাপাশি রয়েছে আরও প্রাণায়াম।

Facebook Comments