দিনাজপুরে ঘোড়ার মাংস বিক্রি করতে গিয়ে আটক শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

কুকুরের মাংস, শেয়ালের মাংস বিক্রি করার খবর গণমাধ্যমে বিভিন্ন সময় প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু ঘোড়ার মাংস বিক্রি করার খবর শোনা গেল এই প্রথমবার।

ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুরে। রংপুরের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম উত্তরবাংলা তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, দিনাজপুরের বিরল উপজেলার রানীপুকুর ইউনিয়নের কাজিপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

বিরল থানার ওসি এটিএম গোলাম রসুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, শুক্রবার সকালে বিরলের কাজীপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ও একই গ্রামের আব্দুল গণির ছেলে আব্দুল কাইয়ুম একটি ঘোড়া জবাই করেন। এরপর নিজেরা ওই ঘোড়ার কিছু মাংস রেখে বাকি মাংস দুইশ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেন।

ঘটনাটি বিরল প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস সরকার ফেসবুকে দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। ঘোড়া জবাইয়ের খবর ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ প্রথমে রায়হানকে আটক করে। পরে সন্ধ্যায় এ ঘটনার হোতা শফিকুল ইসলাম ও আব্দুল কাইয়ুমকেও আটক করতে সক্ষম হয়।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম রওশন কবীর পশু জবাই আইনে তাদের সাজা দেন। কাইউম আর শফিকুলকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং রায়হানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক বছর কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

Facebook Comments