ডেঙ্গুজ্বরে পুলিশপত্নীর মৃত্যু

ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতালে পুলিশের এক সদস্যের স্ত্রী মারা গেছেন। মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর শ্যামলীতে ঢাকা ট্রমা সেন্টার অ্যান্ড স্পেশালাইজড হাসপাতালে তিনি মারা যান।

নিহতের নাম রুপা আক্তার জনি (২৫)। বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী থানায়। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে পুলিশ সদস্য দুলাল হোসেনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

তার স্বামী দুলাল রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে কর্মরত রয়েছেন। স্ত্রী রুপা ও ২ বছরের ১ ছেলে সন্তানকে নিয়ে খিলাগাঁওয়ের বাসাবো কাঠেরপুল রশিদ পাঠানের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন দুলাল।

দুলাল হোসেন জানান, কয়েকদিন ধরে জ্বর থাকায় ২৩ জুলাই রুপাকে পরীক্ষা করা হয়। এতে সে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা যায়। এরপর গত ২৪ জুলাই (বুধবার) রুপা রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে ৪ দিন ভর্তি থাকার পর অবস্থা খারাপ হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ অথবা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতলের আইসিইউতে ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়।

দুলাল হোসেন বলেন, ওই দুই হাসপাতালে আইসিইউ খালি না থাকায় তিনি ৩ দিন ইডেন মাল্টিকেয়ার হসপিটালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। এরপর মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা ট্রমা সেন্টার অ্যান্ড স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করার ৫ মিনিট পর রুপা মারা যান।

Facebook Comments