জন্মদিনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে থাকবেন পরী

পরী তার চলচ্চিত্রের নাম হলেও প্রকৃত নাম শামসুন্নাহার স্মৃতি।২৪ অক্টোবর সাতক্ষীরা জেলায় তার জন্ম।শৈশবে মা সালমা সুলতানা ও বাবা মনিরুল ইসলামকে হারানোর পর পরী বড় হয়েছেন পিরোজপুরে নানা শামসুল হক গাজীর কাছে। এসএসসি পর্যন্ত বরিশালেই পড়াশোনা করেছেন। সেখান থেকেই তিনি তার মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ করেন। ছিলেন সাতক্ষীরা সরকারী কলেজে বাংলা বিভাগের ছাত্রী। ২০১১ সালে ঢাকায় চলে আসেন এবং বাফায় ভর্তি হোন।

মডেলিং দিয়েই যাত্রা হয় রূপালি পর্দায়। টিভি পর্দার অভিজ্ঞতা নিয়ে নিজেকে আরও কিছুটা শানিত করে পা আগান বড় পর্দায়। এরপর থেকে বাজিমাতের পালা। সিনেমা আর বিজ্ঞাপনেই এখন ব্যস্ত বৃশ্চিক রাশির এই জাতিকা।

শাহ আলম মন্ডলের ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র হলেও তিনি আলোচনায় আসেন নজরুল ইসলাম খানের ‘রানা প্লাজা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘পাগলা দিওয়ানা’, ‘দরদিয়া’, এস এ হক অলীকের ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ তার ক্যারিয়ারের প্রথম দিকের কাজ। ‘মনজুড়ে তুই’, ‘লাভার নাম্বার ওয়ান’, ‘নগর মাস্তান’, ‘মহুয়া সুন্দরী’, ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’, ‘পুড়ে যায় মন’, ‘রক্ত’, ‘ধূমকেতু’, ‘কত স্বপ্ন কত আশা’, ‘আপন মানুষ’, ‘সোনা বন্ধু’, ‘অন্তর জ্বালা’, ‘স্বপ্ন জাল’, ‘ইনোসেন্ট লাভ’, ‘মন জ্বলে’, ‘পাষাণ’, ‘নদীর বুকে চাঁদ’, ‘বুকের মাঝে প্রেমের আগুন’ তার উল্লেখযোগ্য কাজ। বর্তমানে ব্যস্ত আছেন চয়নিকা চৌধুরীর ‘বিশ্বসুন্দরী’ চলচ্চিত্রের কাজে। কাজ করছেন ‘ফোয়ার অ্যান্ড লাভলী’র ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে।

২৪ অক্টোবর নিজের জন্মদিন পালন করতে বরাবরের মতো এবারও রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জমকালো আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়েছেন পরী।সেখানে বন্ধু-বান্ধবের পাশাপাশি পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন। তবে, বরাবরের মতো এখানেও একটু ভিন্নতা রাখছেন অভিনেত্রী।

গত বছর জন্মদিনে আমন্ত্রিত অতিথিদের ড্রেসকোড হিসেবে অনুরোধ করেছিলেন কালো-সোনালি রংয়ের পোশাকের ওপর। এ বছর তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন ছেলেদের সাদা এবং মেয়েদের পার্পল রংয়ের পোশাকের ওপর। এ ছাড়া নিজের জন্যও বিশেষ ড্রেস বানিয়েছেন।
এদিকে, গত কয়েক বছরের ন্যায় এবারও জন্মদিনের সকালটা কিছু সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য উৎসর্গ করেবন। তাদের নিয়ে কেক কাটবেন, বিভিন্ন উপহার সামগ্রী বিতরণ করবেন।তাদের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নেবেন।

Spread the love

Facebook Comments