চলচ্চিত্র অনুদানের বিষয়ে উচ্চ আদালতের রুল জারি

৩১ জুলাই দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান এবং বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের এর ডিভিশন বেঞ্চ ‘২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের ৩টি প্রজ্ঞাপণে ১৪টি চলচ্চিত্রকে দেওয়া অনুদানের ঘোষণা কেন অবৈধ হবে না এবং চলচ্চিত্র অনুদানের পূর্ণদৈর্ঘ্য ও স্বল্পদৈর্ঘ্য নীতিমালা অনুযায়ী উক্ত অর্থবছরের সকল চলচ্চিত্রের প্যাকেজ প্রস্তাব কেন পুনঃনিরীক্ষা করা হবে না’ তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন। রুলের জবাব দিতে উচ্চ আদালত তথ্য মন্ত্রণালয়কে ৪ সপ্তাহ সময় দিয়েছেন।

৪ জন চলচ্চিত্রকর্মীর আবেদনের প্রেক্ষিতে আজ আদালত এই রুল জারি করলেন।

২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র অনুদানের জন্য আবেদনকারী চলচ্চিত্র গবেষক ও লেখক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র অনুদানের জন্য আবেদনকারী চলচ্চিত্র নির্মাতা অদ্রি হৃদয়েশ ও চলচ্চিত্র নির্মাতা সুপিন বর্মন এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা খন্দকার সুমন অনুদান নীতিমালা লঙ্ঘন করে ৩টি প্রজ্ঞাপণের মাধ্যমে মোট ১৪টি চলচ্চিত্রের অনুদানের ঘোষণা স্থগিত ও জমাকৃত সকল চলচ্চিত্র নির্মাণ প্যাকেজ প্রস্তাব পুনঃনিরীক্ষণের জন্য গত ১৬ জুলাই জনস্বার্থে উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করেছিলেন।

রিট আবেদনকারীগণের পক্ষে আইনী সহায়তা প্রদান করছেন সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম।

Facebook Comments