কমরেডের মা

নব্বই দশকের কবি টোকন ঠাকুর। সম্প্রতি এই কবির বন্ধুর মা মারা গেছেন। বন্ধুর প্রয়াত মাকে নিয়ে এই কবি লিখেছেন এই কবিতা। পাঠক চলুন পড়ি মাকে নিয়ে কবিতা।

কমরেডের মা

সঙ্গীতশিল্পী হাসিব আহমেদ ছোটন আমার ছোটবেলার বন্ধু। ঝিনেদায় আজ ছোটনের মা মারা গেলেন। ট্রান্সপোর্ট বন্ধ। ছোটন ঢাকায়। কিভাবে যাবে? তা ছাড়া ঝিনেদার হাসপাতাল থেকেও কিছু টেস্টের পর লাশ ওদের ফ্যামিলির কাছে ফেরত দেবে ২/৩দিন পর।

ছোটনরা তিন ভাই, তিনজনেই বামপন্থী ছাত্র আন্দোলনে যুক্ত থাকায়, সেই কলেজে পড়ার সময় ওদের বাড়িটাই ছিল আমাদের আড্ডার জায়গা। দেখতাম, দেশের বড় বড় কমরেডগণ প্রায়শই ওদের বাড়িতে আসছেন। আমরা কমরেডদের সান্নিধ্য পেতে চাইতাম। ঝিনেদা থিয়েটারের অনেক কার্যক্রমও চলত ছোটনদের বাসায়।

ছোটনের মা সবার জন্যে খাবার তৈরি করতেন। অনেক রাত হতো, ছোটন হারমোনিয়াম বাজিয়ে গলায় তুলত_ ‘বলো কি তোমার ক্ষতি, জীবনের অথৈ নদী’…কিম্বা, ‘বাশুরিয়া বাজাও বাঁশি দেখি না তোমায়…’

ছোটনের মা আমার দেখা কমরেডের মা। তাঁকে লাল সালাম।

Spread the love

Facebook Comments