ঈদে সৌদি আরবে কারফিউ

সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ঈদের সময়ও কঠোর বিধিনিষেধ জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে চলতি মাসের শেষের দিকে পাঁচ দিনের ঈদের ছুটিতে দেশব্যাপী পুরোটা সময় কারফিউ জারি করা হবে।

উপসাগরীয় অঞ্চলে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ সৌদি আরব। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দেশটিকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, ২৩ থেকে ২৭ মে পর্যন্ত দেশব্যাপী পুরোপুরি লকডাউন আরোপ করা হবে। পবিত্র রমজান মাস শেষে ঈদ এ সময়ের মধ্যেই পড়ছে।

দেশটিতে মহামারি ছড়িয়ে পড়ায় বেশির ভাগ অঞ্চল পূর্ণ লকডাউনের আওতায় চলে গিয়েছিল। গত মাস থেকে সরকার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কারফিউ শিথিল করে।

দেশটিতে শপিং মল ও খুচরা বিক্রেতাদের দোকান খুলে রাখার অনুমতি দেওয়া হলেও মক্কার মতো শহর বন্ধ রাখা হয়েছে। কঠোর লকডাউনের মধ্যেও কিছু কিছু জায়গায় সংক্রমণ বাড়ছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গতকাল জানিয়েছে, দেশটিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণে ২৬৪ জন মারা গেছেন। করোনায় সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা ৪২ হাজার ৯২৫ জন। সেরে উঠেছেন ১৫ হাজার ২৫৭ জন।

মার্চে ওমরাহ বাতিল করে সৌদি আরব। চলতি বছরের হজ প্রক্রিয়া চালু করা হবে কি না, এর ঘোষণা এখনো দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

গত বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ২৫ লাখ মানুষ সৌদি আরবে হজ পালন করতে যান।

দেশটিতে ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে সিনেমা, রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি আকাশপথ বন্ধ রাখা হয়েছে।

বাদশা সালমান সতর্ক করে বলেছেন, কোভিড-১৯–এর বিরুদ্ধে সামনে কঠিন লড়াই করতে হবে। দেশটিকে ভাইরাসের কারণে ব্যবসা–বাণিজ্য বন্ধ ও তেলের দামে ধসের কারণে দুই দিক থেকে ধাক্কা খেতে হতে পারে।

Spread the love

Facebook Comments