‘আমি মুসলমান, আর আমার স্ত্রী হিন্দু’

‘আমি মুসলমান, আর আমার স্ত্রী গৌরী হলেন হিন্দু। তবে আমার তিন সন্তান কিন্তু শুধুই ‘হিন্দুস্তানী’ (ভারতীয়)’ এভাবেই নিজের ধর্মীয় অবস্থান তুলে ধরেন বলিউড ‘কিং’ শাহরুখ খান।

বর্তমানে ভারতে মেরুকরণের রাজনীতি, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে যখন মহা শোরগোল পড়ে গিয়েছে, এমন পরিস্থিতিতে শাহরুখের মতো ব্যক্তিত্বের এই মন্তব্য যে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য বেশ তাৎপর্যপূর্ণ, সেকথা নেটদুনিয়ায় একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছে। আর এই মন্তব্যের সুবাদেই আরও একবার শাহরুখ মন জিতে নিয়েছেন অনুরাগীদের।

২৬ জানুয়ারি সাধারণতন্ত্র দিবস শাহরুখের এই ভিডিওই ছেয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি একটি টেলিভিশনের এক রিয়েলিটি শো-তে হাজির হয়েছিলেন শাহরুখ। সেখানেই সাফ এমনটা জানিয়ে দিয়েছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। শোয়ের নাম ডান্স প্লাস ফাইভ।

‘ধর্ম, ভেদাভেদ’ এসব নিয়েও শাহরুখ কী ভাবেন এবং তাঁর ছেলেমেয়েরাই কী শিখছে সে প্রসঙ্গেও মুখ খোলেন তিনি। বলিউড বাদশার কথায়, তাঁর বাড়িতে হিন্দু, মুসলিম কিংবা কে, কোন ধর্মের এসব নিয়ে কোনও দিন চর্চা হয় না। সর্বোপরি ‘আমরা ভারতীয়’ সন্তানদের এই শিক্ষাই শাহরুখ এবং গৌরী দিয়ে এসেছেন। এমনটাও জানিয়েছেন তিনি।

শাহরুখের কথায়, “অনেক সময় স্কুলে ভরতির আবেদনপত্রে কোন ধর্মাবলম্বী সেই বিভাগ পূরণ করতে হয়। আমার মেয়ে সুহানা যখন ছোট ছিল, ও একবার আমায় এসে জিজ্ঞেস করেছিল বাবা আমি কোন ধর্মাবলম্বী? উত্তরে আমি বলি আমরা ভারতীয় বাবা, এর বাইরে আমাদের বিশেষ কোনও ধর্ম নই। আর কখনও হওয়াও উচিত নয়।” পাশাপাশি অভিনেতা এও জানিয়েছেন যে, তাঁর সাধের বাড়ি মন্নতে যতটা মহাসমারোহে ঈদ পালন হয়, ঠিক ততটাই জাকজমক করে গণেশ চতুর্থী পালিত হয়। আর শাহরুখের এমন মন্তব্যই মন জয় করেছে নেটদুনিয়ায়।

Spread the love

Facebook Comments