আইসিইউতে ইরফান খান

কয়েক দিন আগেই মাকে হারিয়েছেন। মা জয়পুরে প্রয়াত হওয়ায় মুম্বইয়ে বসে ভিডিও কনফারেন্সেই শেষকৃত্যের সাক্ষী থাকতে হয়েছে। সেই শোক কাটতে না কাটতেই ফের হাসপাতালে ভর্তি হলেন ইরফান খান। আপাতত মুম্বইয়ের ককিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে ভর্তি তিনি।

২০১৮-র শেষ দিক থেকেই সময়টা ভাল যাচ্ছে না বলিউডের প্রতিভাবান এই অভিনেতার। সে বছরই জানা যায়, শরীরে বাসা বেঁধেছে মারণ কর্কট রোগ। তার মাঝেই শেষ করেছিলেন ‘হিন্দি মিডিয়াম’-এর সিক্যুয়েল ‘আংরেজি মিডিয়াম’-এর শুটিং। তবে টিমের সঙ্গে ছবির প্রচারে থাকতে পারেননি। কারণ সেই সময় মারণরোগের চিকিৎসায় ইরফানকে চলে যেতে হয়েছিল ব্রিটেনে। গত মাসে লকডাউনের দিন দশেক আগে নির্ধারিত সময়েই মুক্তি পায় তাঁর ছবি। বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হয় ছবিটি এবং ইরফানের দুর্দান্ত অভিনয়।

মনে হয়েছিল যেন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে তাঁর জীবন। কিন্তু তাল কাটল দিন কয়েক আগে। প্রয়াত হন তাঁর মা সাইদা বেগম। বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। বয়সজনিত কারণেই দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন তিনি। তবে করোনার জেরে দেশজুড়ে লকডাউন থাকায় জয়পুরে মায়ের শেষকৃত্যে হাজির থাকতে পারেননি ইরফান। ভিডিও কলেই মাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে হয়েছিল তাঁকে।

আপাতত তিনি আইসিইউ-তে রয়েছেন বলে খবর। ঠিক কী কারণে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে, তা প্রথমে জানা না গেলেও সন্ধেয় মুখ খোলেন মুখপাত্র। জানান, কোলোন ইনফেকশন নিয়ে তিনি ভর্তি। আপাতত চিকিৎসকরা তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। এর আগেও অনেক যুদ্ধ করে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। এবারও তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন। হাসপাতালে তাঁর সঙ্গে রয়েছেন স্ত্রী সুতপা শিকদার এবং দুই ছেলে বাবিল ও অয়ন। ইরফানের হাসপাতালে ভর্তির খবর ছড়িয়ে পড়তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে জল্পনা। অভিনেতার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছেন ভক্তরা।

Spread the love

Facebook Comments